‘আতঙ্কে চট্টগ্রামের শিয়ার’

“ঢাকা ও বগুড়ায় হামলার পর নিজেদের নিরাপত্তাহীনতায় আতঙ্কিতবোধ করছেন চট্টগ্রামের শিয়া সম্প্রদায়ের মানুষেরা”

রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১৫

সিটিজিবার্তা২৪.কম ||

চট্টগ্রাম সদরগাট শিয়া মসজিদ ছবি ঃ আর করিম সিটিজিবার্তা২৪.কম

চট্টগ্রামের সদরঘাট শিয়া মসজিদ ছবি ঃ সিটিজিবার্তা২৪.কম

চট্টগ্রাম ঃ রাজধানীর হোসনি দালানে আশুরার রাতে তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতির সময়ে গ্রেনেড হামলা এবং বগুড়ায় মসজিদে গুলিবর্ষণের ঘটনার ফলে নিজেদের নিরাপত্তাহীনতায়  আতঙ্কিতবোধ করছেন চট্টগ্রামের শিয়া সম্প্রদায়ের মানুষেরা। হামলার আশঙ্কায় সরকারের কাছে নিরাপত্তার জোর দাবি জানিয়েছেন তারা। একইসাথে এ ধরনের বর্বরোচিত হামলার সঠিক এবং সুষ্টো বিচারের দাবি জানিয়েছেন।

গতোকাল (২৮ নভেম্বর) শনিবার চট্টগ্রামে শিয়া সম্প্রদায়ের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা মাওলানা আমজাদ হোসেন এই দাবি জানিয়েছেন সরকারের কাছে ।

ঢাকা ও বগুড়ায় হামলার কারণে এরইমধ্যে চট্টগ্রামের বন্দর এলাকায় বসবাসরত শিয়া সম্প্রদায়ের মধ্যে আতঙ্ক ও উদ্বেগ বিরাজ করছে । এ বিষয়ে মাওলানা আমজাদ হোসেন সিটিজিবার্তা২৪.কম ‘কে বলেন, ‘সাম্প্রতিক হামলাগুলোর পর আমরা নিজেদেরকে অনিরাপত্তাহীনতায় আতঙ্কিতবোধ করছি। কারণ আমরা জানি না কারা আমাদের শিয়াদের উপরে এই হামলাগুলো করছে। তবে মনে হয়, বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির যে গৌরবজনক ইতিহাস আছে তা ভাঙতেই দুর্বৃত্তরা এসব হামলা চালাচ্ছে।’

মাওলানা আমজাদ ইরানে তার উচ্চতর শিক্ষা জীবনী শেষ করে বর্তমানে চট্টগ্রামের সদরঘাট ইমামবাড়া মসজিদের খতিব হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। চট্টগ্রাম নগরীর বিভিন্ন এলাকাজুড়ে বসবাসরত শিয়া সম্প্রদায়কে বর্তমানে তিনিই নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

এ ব্যাপারে মাওলানা আমজাদ সিটিজিবার্তা২৪ডটকম’কে বলেন, বগুড়ায় শিয়া মসজিদে হামলার পর তারা নিরাপত্তার দাবিতে শনিবার (২৮ নভেম্বর) চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ কমিশনার (সিএমপি) এর সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে দেখা করেছেন। এরপরেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার কর্মকর্তারা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

গত বৃহস্পতিবার বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার চককানু গ্রামে মাগরিবের নামাজের সময় একটি শিয়া মসজিদে ঢুকে নামাজরত মুসল্লিদের ওপর গুলি চালায় তিন দুর্বৃত্ত। এ ঘটনায় ওই মসজিদের মোয়াজ্জিন নিহত ও ইমামসহ তিন জন আহত হন।’সঠিকভাবে কারা এই হামলার সঙ্গে জড়িত এ বিষয়ে এখনও অন্ধকারে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

একটি সূত্র জানায়, চট্টগ্রামে প্রায় ১৫০টি শিয়া পরিবার বসবাস করে। তারা সাধারণত নগরীর সদরঘাট এলাকায় সদরঘাট ইমামবাড়া এবং হালিশহর এলাকার বি ব্লকে অবস্থিত হুসাইনিয়া ইমামবাড়ায় নামাজ ও ধর্মীয় অনুষ্ঠানাদি পালন করেন।

সাম্প্রতিক হামলাগুলোর পর আগামী দুই দিনের মধ্যে এই দুটি মসজিদে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা লাগানোর পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মাওলানা আমজাদ।

এ বিষয়ে সিএমপি এর অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অর্থ, ট্রাফিক ও প্রশাসন) একেএম শহীদুর রহমান সিটিজিবার্তা২৪ডটকম ‘কে বলেন, ‘বগুড়ার হামলার পর নিরাপত্তা নিশ্চিতে নগরীর শিয়া মসজিদগুলোতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

সিটিজিবার্তা২৪.কম/ জেএ / আর কে  ২৮ নভেম্বর

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.