‘আমরা সেদিন পিতা হারিয়েছিলাম, আর জাতি হারিয়েছিলো স্বপ্ন’

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিটিজিবার্তা২৪ডটকম

বুধবার, ২ নভেম্বর ২০১৬

'আমরা সেদিন পিতা হারিয়েছিলাম, আর জাতি হারিয়েছিলো স্বপ্ন'

ঢাকা: জাতীয় নেতা এ এইচ এম কামরুজ্জামানের ছেলে রাজশাহী সসিটি ককর্পোরেশনের সাবেক মেয়র খায়রুজ্জামান চৌধুরী লিটন বলেছেন, ‘১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর আমরা পিতা হারিয়েছিলাম, সেদিন জাতি হারিয়েছিল স্বপ্ন। বঙ্গবন্ধুর পর জাতীয় ৪ নেতাকেও হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছিল পুরো জাতি।’

মঙ্গলবার (১ নভেম্বর) পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন সড়কে কেন্দ্রীয় কারাগারের অভ্যন্তরে জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোকচিত্র প্রদর্শনী ‘সংগ্রামী জীবনগাঁথা’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য প্রয়াত নেতা কামারুজ্জামানের ছেলে এসব কথা বলেন।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র লিটন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর এই চার জাতীয় নেতাকে বিভিন্নভাবে প্রলোভন দেখানো হয়। কিন্তু তারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ত্যাগ করতে রাজি হয়নি। আর এই কারণেই তাদের মৃত্যুবরণ করতে হলো।’

জাতীয় নেতাদের হত্যার পর শূন্যতা পূরণ আর নতুনভাবে স্বপ্ন দেখা শুরু হয়েছিল জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ঘিরেই, বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

কারা অধিদফতরের মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিনের সভাপতিত্বে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, স্বরাষ্ট্রসচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খান, রাজশাহীর সাবেক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জার্নির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. খন্দকার বজলুল হক, প্রদর্শনীর কিউরেটর ইমিরেটাস ড. এ কে আব্দুল মোমেনসহ কারা অধিদফতরের কর্মকর্তারা।

জেল হত্যা দিবস উপলক্ষে ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কারা স্মৃতি জাদুঘর’ ও ‘জাতীয় চার নেতা কারা স্মৃতি জাদুঘর’ ঘুরে দেখা ও দুর্লভ ১৪৫টি ছবি নিয়ে আয়োজিত প্রদর্শনী চলবে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত। প্রদর্শনী উপলক্ষে সকল দর্শনার্থী কারাগার অভ্যন্তরে প্রথমবারের মতো প্রবেশের সুযোগ পাবেন।

আগামীকাল ২ নভেম্বর থেকে সাধারণ দর্শনার্থীরা কারাগারের ভেতরে প্রবেশ ও দুটি জাদুঘরসহ আশপাশ ঘুরে দেখতে পারবেন। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। তিনটি সেশনে এ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।

সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে ১২টা প্রথম, দুপুর ১টা থেকে ৩টা এবং তৃতীয় সেশনে বিকাল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত দর্শনার্থীরা প্রবেশ করতে পারবেন। কারাগারে প্রবেশ করতে জনপ্রতি টিকেট লাগবে ১০০ টাকা।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.