‘আমাকে হেনেস্তা করা হয়নি’

‘কেউ আমাকে জোর করে বাংলাদেশের পতাকা পরায়নি (নো বডি ফোর্সড), আমি বাংলাদেশকে ভালোবাসি, এখানকার মানুষ খুবই ভালো। এমনকি ফাইনালে বাংলাদেশের জয় নিয়েও আমি আশাবাদী।’

আমাকে হেনেস্তা করা হয়নি

মিরপুরের শেরে-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে একজন পাকিস্তানিকে হেনস্তা করার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগের এমপি ইলিয়াস মোল্লার বিরুদ্ধে। পাকিস্তানি ওই সমর্থককে জোর করে বাংলাদেশের পতাকা পরানো হয়েছে এমন অভিযোগও উঠেছে । সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যাওয়া কয়েকটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, আওয়ামী লীগের এমপি ইলিয়াস মোল্লার উপস্থিতিতে সেই পাকিস্তানি সমর্থক বশির আহমেদ কাঁদছেন।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া বশির চাচার ছবি

তবে বশির আহমেদ যিনি বশির চাচা নামেই সবার কাছে পরিচিত তিনি বলেন, ‘কেউ আমাকে জোর করে বাংলাদেশের পতাকা পরায়নি (নো বডি ফোর্সড), আমি বাংলাদেশকে ভালোবাসি, এখানকার মানুষ খুবই ভালো। এমনকি ফাইনালে বাংলাদেশের জয় নিয়েও আমি আশাবাদী।’

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া বশির চাচার ছবি

গত বুধবার এশিয়াকাপ টি-টোয়িন্টিতে বাংলাদেশ-পাকিস্তানের খেলার পরে বশির আহমেদের গায়ে জোর করে বাংলাদেশি পতাকা পরানো হয়েছে বলে ফেসবুকে কিছু ছবি ছড়িয়ে পড়ে। ফেসবুকের বিভিন্ন পোস্টের সূত্রে জানা গেছে, পাকিস্তানি নাগরিক বশির আহমেদ পৃথিবীর যেখানেই পাকিস্তানের খেলা হয় সেখানেই তিনি নিজ দেশের খেলা দেখতে হাজির হন, সমর্থন দেন নিজ দেশকে।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া বশির চাচার ছবি

ফেসবুকের ছবিতে দেখা যায়, ইলিয়াস মোল্লা চেয়ারে বসে রয়েছেন এবং বয়স্ক পাকিস্তানি সমর্থকটি কাঁদছেন তার সামনে দাঁড়িয়ে। সেই মুহূর্তে চারপাশে দাঁড়িয়ে বেশ কয়েকজন নারী-পুরুষ দৃশ্যটি উপভোগ করছেন, হাসছেন এবং কেউ কেউ তার সঙ্গে সেলফি তুলছেন, কেউবা ক্যামেরাবন্দী করছেন সেই মুহূর্তটি।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া বশির চাচার ছবি

ছবিগুলো ভার্চুয়াল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়ায় তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ফেসবুকে এ ঘটনায় তদন্তও চাইছেন কেউ কেউ।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া বশির চাচার ছবি

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে মিরপুরের প্রিন্স হোটেলে অবস্থান করা বশির আহমেদ টেলিফোনে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘‘সেদিন আমাকে কোনওভাবেই জোর করে বাংলাদেশি পতাকা পরানো হয়নি। খেলা চলাকালে আমি সেদিন পাকিস্তানি পতাকা নিয়ে ভেতরে যেতে চেয়েছিলাম। তখন আমাকে চার/পাঁচজন এসে বললেন, ‘ইউ ডোন্ট ক্যারিড পাকিস্তানি ফ্ল্যাগ, আই সেইড হোয়াই। দেন বলাথা- প্রাইম মিনিস্টার ইজ ইনসাইড, নো পাকিস্তানি ফ্ল্যাগ।’ আফটার ম্যাচ ফিনিশ, আফটার বাংলাদেশ উইন আই ক্যারিড বাংলাদেশস ফ্ল্যাগ, অ্যান্ড হাম বোলা- বাংলাদেশ জিন্দাবাদ।’’

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া বশির চাচার ছবি

বশির আহমেদ বলেন, ‘আই লাভ বাংলাদেশ। সামথিং হ্যাপেন্ড ইন সেভেন্টি ওয়ান, দেন আই স্মল, ভেরি স্মল, বাট আল্লাহ-তায়ালা অলরেডি গিভ পানিশম্যান্ট টু পাকিস্তান..ইউ নো। আই ফিল ভেরি সরি… হোয়াট হ্যাপেন্ড ইন সেভেন্টি ওয়ান।’

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া বশির চাচার ছবি

কিন্তু আপনাকে জোর-জবরদস্তি করে বাংলাদেশি পতাকা পরানোর জন্য কেঁদেছেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘নো নো, আমি ফিল হ্যাপি, আই ওয়াজ নট ক্রায়িং। হতে পারে যে, মে বি, পাকিস্তান ম্যাচে হেরে গিয়েছে একটা কষ্ট তো থাকতেই পারে, আই বর্ন ইন পাকিস্তান, পাকিস্তান লস্ট। বাট বাংলাদেশি পিপল ভেরি হ্যাপি, বাংলাদেশি পিপল ভেরি গুড, আই অ্যাম হ্যাপি। অ্যান্ড ইনশাআল্লাহ বাংলাদেশ উইল উইন।’ তিনি আরও বলেন, ‘আই লাভ ধোনি, বাট বাংলাদেশ উইল উইন।’

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.