‘এই সরকার হতদরিদ্র মানুষের পাশে থাকার সরকার’ ঃ মায়া

Tuesday,12 June 2018

ctgbarta24.com

বিশেষ সংবাদদাতা ঃ কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাঠানো ঈদ উপহার তুলে দিলেন দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া । এসময় মন্ত্রী বলেন, মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে সরকার মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। নিশ্চয় তাদেরকে মিয়ানমারে ফেরত যেতে হবে। রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়দের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে, সেটিও পুষিয়ে দেওয়া চেষ্টা করছে সরকার।

মঙ্গলবার (১২ জুন) দুপুরে হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে প্রধানমন্ত্রীর পাঠানো উপহার সামগ্রী বিতরণের অনুষ্ঠানে মন্ত্রী আরো বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি স্থানীয়দের কথা চিন্তা করেছে। কারন, তিনি সাধারণ মানুষের কথা ভাবেন। মানুষকে ভালোবাসেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার একটি জনবান্ধব সরকার। এই সরকার হতদরিদ্র মানুষের পাশে থাকার সরকার।’

জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে পাঠানো উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়ের সচিব মো. শাহ কামাল, বিভাগীয় কমিশনার মো. আব্দুল মান্নান, এনডিসির শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাশন কমিশনার মোঃ আবুল কালাম, জেলা পুলিশ সুপার ড. ইকবাল হোসেন, সাবেক সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যাপক মো. আলী, টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রবিউল হাসান, টেকনাফ মডেল থানার ওসি রনজিত কুমার বড়–য়া, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা পরিষদের সদস্য শফিক মিয়া, জেলা আওয়ামীলীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. ইউনুছ বাঙ্গালী, হ্নীলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এইচ কে আনোয়ার।

এসময় উপস্থিত ছিলেন,প্যানেল চেয়ারম্যান আবুল হোসন, হৃীলা ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা সদস্যা ফরিদা বেগম, নাছরিন পারভিন, মর্জিনা আক্তার।

উল্লেখ্য,হ্নীলা ইউনিয়নে দুই হাজার পরিবার, বাহারছড়া ইউনিয়নে ১ হাজার পরিবার, হোয়াইক্যং ইউনিয়নে ১ হাজার ৮’শ পরিবার, টেকনাফ সদর, সেন্টমার্টিন, সাবরাং ইউনিয়নসহ ১ হাজার, পৌরসভায় ২’শ পরিবারসহ পুরো উপজেলায় ৬ হাজার পরিবারকে ১ কোটি ২০লাখ নগদ অর্থ প্রদান করা হয়। প্রতি প্যাকেটে ২ কেজি চাল, ৫০০ গ্রাম দুধ, ১ লিটার তৈল, ১ কেজি চিনি, ৪ প্যাকেট লাচ্ছা সেমাই, ১টি রুহ- আফজা, ১ টি শাড়ি লুঙ্গী রয়েছে।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.