চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মেয়রের সাথে রাশিয়ান ফেডারেশনের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

সোমবার,২১ নভেম্বর ২০১৬

img_8133চট্রগ্রাম : রাশিয়ান রাষ্ট্রাদূত চট্টগ্রামের মনোরম, প্রাকৃতিক ও নৈসর্গিক সৌন্দর্যের প্রশংসা করেছেন। তারা পর্যটন শিল্প, বিদ্যুৎ উৎপাদন সহ নানা খাতে ব্যবসায়িক সম্পর্ক এবং উন্নয়ন সহযোগী হতে আগ্রহ ব্যক্ত করেন।

২১ নভেম্বর সোমবার, সকালে বাংলাদেশে নিযুক্ত রাশিয়ান ফেডারেশনের মান্যবর রাষ্ট্রদূত গৎ. অষবুধহফবৎ ওমহধঃড়া চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীনের সাথে তাঁর অফিস কক্ষে এক সৌজন্য সাক্ষাতে এ কথা বলেন। রাশিয়ান ফেডারেশনের রাষ্ট্রদূত চট্টগ্রাম নগর ভবনে মেয়র দপ্তরে পৌঁছলে মেয়র তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান এবং সিটি কর্পোরেশনের মনোগ্রাম খচিত ক্রেস্ট উপহার দেন। সিটি মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন রাশিয়ান ফেডারেশনের রাষ্ট্রদূত চট্টগ্রামে সফরে আসায় তাকে নগরবাসীর পক্ষে ধন্যবাদ জানান।

মেয়র রাশিয়ান ফেডারেশনকে বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু দেশ হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, ১৯৭১ সনের মহান মুক্তিযুদ্ধে রাশিয়া বাংলাদেশের পাশে থেকে মহান মুক্তিযুদ্ধে সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশ চিরদিন স্মরনে রাখবে। মেয়র বলেন, স্বাধীনতার পর চট্টগ্রাম বন্দর সচল করার জন্য রাশিয়ার একজন নাবিক জীবন উৎসর্গ করে বাংলাদেশকে রাশিয়ার কাছে ঋণি করেছে। যতদিন বাংলাদেশ পৃথিবীর বুকে টিকে থাকবে ততদিন রাশিয়ার অবদান বাংলাদেশ স্মরণ করবে।

জনাব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, বন্দর নগরী চট্টগ্রাম ভৌগলিক ও অর্থনৈতিক দিক থেকে গার্মেন্টস শিল্প, স্বাস্থ্য, শিক্ষা সহ বিবিধ খাতে পুঁজি বিনিয়োগ ও পর্যটন শিল্পের জন্য উপযোগী ও নিরাপদ এলাকা। এ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, বহু বিদেশী কোম্পানী সাফল্যের সাথে চট্টগ্রামে তাদের ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনা করে যাচ্ছে। মেয়র পোর্ট সিটি চট্টগ্রামের সাথে রাশিয়ার পোর্ট সিটির মধ্যে টু-ইন সিটির সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব করেন। সৌজন্য বৈঠকে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন তার দায়িত্ব পালনকালিন সময়ে বিলবোর্ড উচ্ছেদ সহ উন্নয়ন ও সেবাধর্মী নানা বিষয় তুলে ধরেন। তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতের সেবা দেশ ও বিদেশে প্রশংসিত হচ্ছে। মেয়র চট্টগ্রামকে বিশ্বমানের আধুনিক ক্লিন ও গ্রিন সিটিতে উন্নিত করার ইচ্ছা ও আগ্রহ ব্যক্ত করেন। এ বিষয়ে তার পরিকল্পনার বিশদ ব্যাখ্যাও প্রদান করেন। রাশিয়ান ফেডারেশনের রাষ্ট্রদূত চট্টগ্রামের বর্তমান দৃশ্য দেখে মুগ্ধ হন।

তিনি সিটি মেয়রের পোর্ট সিটির মধ্যে টু-ইন সিটির সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাবকে সাধুবাদ জানান। এ বিষয়ে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহনে তার আগ্রহ ব্যক্ত করেন। রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশে রাশিয়ার ব্যাপক কার্যক্রম সম্পর্কে মেয়রকে অবহিত করেন। বাংলাদেশের সাথে বিদ্যমান সুসম্পর্ক বাংলাদেশের উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা রাখছে বলেও জানান।

বৈঠকে রাশিয়ান ফেডারেশনের কনসাল জেনারেল ঙষবম চ. ইড়ুশড়, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল হোসেন, স্থপতি আশিক ইমরান, মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবদুর রহিম সহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.