চট্টগ্রাম-০৮: বাদলে নাভিশ্বাস, দলীয় প্রার্থীর দাবিতে একাট্টা আ’লীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিটিজিবার্তা২৪ডটকম

বুধবার, ২৮ নভেম্বর ২০১৮

চট্টগ্রাম-০৮: বাদলে নাভিশ্বাস,দলীয় প্রার্থীর দাবিতে একাট্টা আ'লীগ

চট্টগ্রাম : আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-০৮ নং আসনে জাসদ একাংশের নেতা মাঈনুদ্দিন খান বাদলকে তৃতীয় বারের মত আবারো আওয়ামীলীগের প্রার্থী ঘোষণা করায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব চত্বরে বিক্ষোভ করেন স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীগণ।

এসময় তাদের সাথে যোগ দেন এই আসনের বিভিন্ন পেশাজীবী মানুষ। এই সংসদীয় আসনের ভোটার এমন অনেকে প্রতিবাদ জানাতে এসে বক্তব্য রাখেন। তারা হলেন হুমায়ুন কবির, নেজাম উদ্দিন, মোজাম্মেল হক, আয়াছ উদ্দিন, ইকবাল হোসেনসহ অনেকে।

বক্তব্যে তারা ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বিগত দশ বছরে তিনি এলাকাবাসীর জন্য কিছুই করেননি। তার কাছে গিয়ে কেউ বিন্দু মাত্র সেবা পাননি। এই আসনে জনগণের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল কালুরঘাট সেতু নির্মাণ। সাংসদ তা বাস্তবায়নে কোন সাফল্য দেখাতে পারেননি। তিনি ব্যস্ত ছিলেন স্বজনপ্রীতি নিয়ে। এক কথায় বলা যায়, তিনি পুরোপুরি ব্যর্থ একজন সাংসদ!

এসময় দলীয় নেতাকর্মীরা তাদের বক্তব্যে বলেন, এই প্রার্থীকে নিয়ে ভোটারদের কাছে কিভাবে যাবো? তিনি জনবিচ্ছিন্ন ছিলেন বিগত দশবছর। স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতাকর্মী কারো সাথে সম্পর্ক রাখা, তাদের খোঁজখবর রাখা বোধগম্য হয়নি তার। এমনকি তার আপন ভাই বোয়ালখালী উপজেলা বিএনপি শীর্ষ পর্যায়ের নেতা, তিনি বিএনপি প্রার্থী মোর্শেদ খানের অনুসারী।

এসময় দলীয় কর্মীরা রাগান্বিত কণ্ঠে বলেন, আমাদের অবস্থা এমন যে এই প্রার্থীকে নিয়ে ভোট চাইতে গেলে জনগণ আমাদের জুতা পেটা করবেন, লাঞ্চিত করতে পারেন। আমরা তাকে নিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতির মধ্যে আছি!

চট্টগ্রাম-০৮: বাদলে নাভিশ্বাস,দলীয় প্রার্থীর দাবিতে একাট্টা আ'লীগ

উল্লেখ্য, স্বাধীনতা পরবর্তী এই আসনে আওয়ামীলীগের কেউ সাংসদ নির্বাচিত হননি, কিন্তু এবার দলীয় লোকের হাতে নৌকা চাই স্থানীয় আওয়ামীলীগ। বিরোধী জোটের প্রার্থীর সামনে এই প্রার্থীর অস্তিত্ব কেমন তাও ভাবা উচিৎ বলে মন্তব্য করা হয়। যারা আওয়ামীলীগ করেন, তাদের মাঝ থেকে যে কোন কাউকে মনোনয়ন দেওয়ার জোর দাবি জানান বক্তারা।

উক্ত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য ওয়াহিদুল আলম, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ফারুক ইসলাম, ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সদস্য শুভ দাশ, নগর ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক রবিউল হোসেন সুমন, কার্যনির্বাহী সদস্য আতিকুল হাকিম, রাফিদুল আবরার চৌধুরী, হাজেরা-তজু বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগ নেতা জাবের আলম, গিয়াস উদ্দিন তালুকদার আদর, চান্দগাঁও ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা আজগর আলী, ইকবাল হোসেন, সাজ্জাদুল ইসলাম, আহনাফ কবির পাপন প্রমুখ।

আপনার মতামত দিন....

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.