জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার দায়িত্ব ছাড়লো গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়

প্রকাশ : শুক্রবার, ২১ অক্টোবর ২০১৬

জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার দায়িত্ব ছাড়লো গণশিক্ষা মন্ত্রনালয়

জেএসসি-জেডিসি সমাপনী পরীক্ষা (ফাইল ছবি)

সিটিজিবার্তা২৪ডটকম : আগামী ১ নভেম্বর থেকে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা শুরু হবে। এর আগেই গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এই পরীক্ষার দায়িত্ব ছেড়ে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার। ফলে এ পরীক্ষা আগের মতোই শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে অনুষ্ঠিত হবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান গতকাল বৃহস্পতিবার শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে আধা সরকারি পত্রে (ডিও লেটার) এ বিষয়টি জানান।

এ বিষয়ে মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় তাদের এ পরীক্ষাটি নিতে বলেছিল। কিন্তু যেহেতু মন্ত্রিসভা এ বিষয়ে তাদের কর্তৃত্ব দেয়নি তাই শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে সে বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত এই পরীক্ষা পদ্ধতি আগের মতোই বহাল থাকবে।

প্রসঙ্গত, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় ১৮ মে জাতীয় শিক্ষানীতি বাস্তবায়ন ও মনিটরিং কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় প্রাথমিক স্তর অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত উন্নীত করার সিদ্ধান্ত হয়।

এরপর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় পঞ্চম শ্রেণির সমাপনী পরীক্ষা উঠিয়ে দিতে গত ২৭ জুন মন্ত্রিসভায় প্রস্তাব পাঠায়। কিন্তু মন্ত্রিসভা তাতে সায় না দিয়ে আরও পরীক্ষা নিরীক্ষার জন‌্য ওই প্রস্তাব ফেরত পাঠায়।

এ বিষয়ে গণশিক্ষা মন্ত্রী বলেন, মন্ত্রিসভায় কী সিদ্ধান্ত হয়েছে সেই কাগজ আনিয়েছি। একটি পরীক্ষার ব্যাপারে প্রস্তাব দিয়েছিলাম। মন্ত্রিসভা সেটি অনুমোদন না করে জাতীয় শিক্ষানীতি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত দিয়েছে।

মন্ত্রিসভা বলেছে, যেহেতু প্রাথমিক সমাপনী প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন পরিচালিত হবে, সেহেতু আগের মতো জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শিক্ষা বোর্ডের মাধ্যমে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ‌্যমে পরিচালিত হওয়া বাঞ্ছনীয়। আর তা মন্ত্রিসভা থেকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান বলেন, জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার সব প্রস্তুতি শেষ, পরীক্ষা নিতে আমরা পুরোপুরি প্রস্তুত। যে মন্ত্রণালয়ের অধীনেই হোক, পরীক্ষার্থীদের কোনও অসুবিধা হবে না।

আপনার মতামত দিন....

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.