নগরীর বাকলিয়ায় প্রথম ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার উদ্বোধন করলেন সিএমপি কমিশনার

মঙ্গলবার ,০৩ নভেম্বর ২০১৫

সিটিজিবার্তা ২৪ ডটকম

12211078_1031700403527700_546566312_o (1)

নগরীর বাকলিয়ায় ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার উদ্বোধন করছেন সিএমপি পুলিশ কমিশনার মোঃ আব্দুল জলিল মন্ডল (বিপিএম)

চট্টগ্রাম  প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম নগরীতে বাকলিয়ার বৌবাজারে সুবর্ণ আবাসিক এলাকায় ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেছেন সিএমপি কমিশনার মো: আব্দুল জলিল মন্ডল (বিপিএম)।

আজ  মঙ্গলবার দুপুরের দিকে তিনি এ ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার উদ্বোধন করেন।

তিনি বলেন, বাড়ির নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সকল বাড়ির মালিকদের ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপন করা খুবিই  গুরুত্বপূর্ণ।

অপরাধ দমন ও অপরাধীদের দ্রুত শনাক্ত করতে বন্দরনগরীকে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার আওতায় আনতে কাজ করছে মহানগর পুলিশ। নগরীর ১৬ থানার ওসি’র তত্তাবধানে রাস্তায় রাস্তায় লাগানো হচ্ছে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা।

নগরীর বৌবাজার খাজা হোটেলের সামনে সুবর্ণ আবাসিক সমিতি আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, “নিজের বাড়ি নিজেদের   নিরাপদ রাখা গুরুত্বপূর্ণ। বাড়ির সামনে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপন করুন।    বাড়ির সামনে রাস্তায়, অলিগলিতে, সরু সড়কে, নালা-নর্দমার কাছে,বস্তির সামনে ক্যামেরা লাগান। বস্তিতে অপরাধ প্রবনতা বেশি হয়।বস্তির মালিকদের সেখানে ক্যামেরা লাগাতে হবে “।

“ভাড়াটিয়া যদি এসে দেখেন, মালিক বাড়ির সামনে ক্যামেরা লাগিয়েছেন, এতে ভাড়াটিয়া সন্তুষ্ট হবেন। মালিক যদি এক হাজার টাকা ভাড়া সেক্ষেত্রে বেশি চান, ভাড়াটিয়া দিতে কার্পণ্য করবেন না। কারণ, ভাড়াটিয়া যদি নিরাপদ বোধ করেন, তার ভাড়া বেশি দিতে আপত্তি থাকার কথা নয়।” বলেন আব্দুল জলিল মন্ডল।

12211138_1031688043528936_670489193_o

নগরীর বাকলিয়ায় ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন বাকলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মহসিন (পিপিএম)

তিনি বাড়ির মালিকদের উদ্দেশ্যে আরও বলেন,”বাড়ির সামনে ক্যামেরা লাগান আর যাকে বাসা ভাড়া দেবেন তার জাতীয় পরিচয়পত্র সংগ্রহ করে রাখুন।  নাম-ঠিকানা লিখে নিজের হেফাজতে রাখুন। কোন অপরাধী যদি বাসায় অপরাধ করে আর তার বিষয়ে যদি কোন তথ্য না থাকে তাহলে আমরা বাড়ির মালিককে ছাড়বনা। তখন মালিককে আমরা বাড়িতে থাকতে দেবনা, তার জায়গা হবে জেলখানা।”

এসময় সুবর্ণ আবাসিক সমিতির সভাপতি জসিম উদ্দিন সিএমপি কমিশনারের হাতে বেশকিছু জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি তুলে দেন।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম নগরীর মধ্যে বাকলিয়ায় প্রথম ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার কার্যক্রমের উদ্বোধন হয়েছে।  এক্ষেত্রে বাকলিয়া একটা দৃষ্টান্ত স্থাপন করল।  আস্তে আস্তে পুরো শহর ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার আওতায় আসবে।

অনুষ্ঠানে বাকলিয়া থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন বলেন, “অনেকে বলেন- বাকলিয়া অনগ্রসর, পিছিয়ে আছে। আমি বলি, বাকলিয়া অনেক এগিয়ে আছে। আমার উপর আস্থা রাখুন। আমি যেহেতু দীর্ঘদিন আপনাদের সেবা করার সুযোগ পাচ্ছি, আমি এই বাকলিয়াকে মাদক-সন্ত্রাসমুক্ত করবই। আর আমার এ প্রচেষ্টার অন্যতম একটি পদক্ষেপ হচ্ছে পুরো বাকলিয়াকে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার আওতায় আনা।”

তিনি উপস্থিত স্থানীয় জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, “আপনারা যদি মাদক বিক্রেতাদের সহযোগিতা না করেন, তাহলে বাকলিয়ায় মাদক ব্যবসা সম্ভব নয়। আপনাদের এলাকার অনেক সম্মানিত লোকের ছেলে ইয়াবা ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। সাবধান হয়ে যান। যার সন্তানই হোক, আমি আইনের আওতায় আনব।”

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন নগর পুলিশের উপ কমিশনার (দক্ষিণ) কামরুল ইসলাম, ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইয়াছিন চৌধুরী আছু ও সাবেক কাউন্সিলর শাহেদা কাশেম সাথী। এসময় অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, সহকারি কমিশনার (কোতয়ালি জোন) মো.মাঈনুদ্দিন এবং সিএমপি কমিশনারের স্টাফ অফিসার সহকারি কমিশনার আসিফ মহিউদ্দিন মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.