পার্টিতে মেকআপ করে নিজেকে আর্কষণীয় করে নিন

Sunday,15 Oct 2017

Ctgbarta24.com

পার্টিতে যাওয়ার আগে মেয়েদের মেকআপ নেয়া চাই-ই চাই। পার্টিতে মেকআপ করে নিজেকে আর্কষণীয় করে তুলতে চায় সবাই। কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় সে মেকআপ লং লাস্টিং হয় না। কিছু সময় পরই সব নষ্ট হতে থাকে। আজ মেকআপ করার কিছু পদ্ধতি দেয়া হলো যা অনুসরন করলে এ সমস্যা গুলো হবে না।

স্টেপ:১ প্রথমে ভাল মানের কোন স্ক্রাব দিয়ে পুরো মুখ ভালো করে ধুয়ে নিন। এরপর দুটি বরফ ভালভাবে মুখে ঘষে নিন। বরফ আপনার মুখের অতিরিক্ত তেল শুষে নিবে।

স্টেপ:২ এরপর আপনার পছন্দের কোন ভাল মানের ময়েশ্চারাইজার মুখে লাগিয়ে নিন।

স্টেপ:৩ এরপর আসুন প্রাইমারে। প্রাইমার মেকআপের একটি বেসমেন্ট বলতে পারেন। এটি আপনার ত্বক কে করবে মসৃন এবং মুখের পোর গুলো কে ব্লার করে দিয়ে মুখে স্মুথ ভাব আনবে। যাতে মেকআপ করার সময় সেটি ভাল মত মুখে বসে।
প্রাইমার একটু খানি হাতে নিয়ে পুরো মুখে ভালমত দিন।

স্টেপ:৪ কন্সিলর লাগান মুখে। যাদের মুখে দাগ রয়েছে, তারা এটি ইউজ করবেন। তার জন্য পুরো মুখে কন্সিলর ইউজ করবেন না। যে অংশগুলে দাগ রয়েছে, সেখানে আঙ্গুলের মাথা দিয়ে লাগিয়ে নেবেন।বিশেষ করে চোঁখের নিচে অনেকেরই ডার্ক সার্কেল দেখা যায়, তারা চোঁখের নিচে দিয়ে নিলে চোঁখ অনেক ব্রাইট লাগবে। মুখে লালচে এবং কাঁলচে অংশে লাগিয়ে ঢ্যাপ করে ভাল মত ব্লেন্ড করে নিন।

স্টেপ:৫ এরপর ফুল কভারেজ পার্টি মেকআপের জন্য ব্যবহার করতে হবে ফাউন্ডেশন। অনেকে অবশ্য পেনকেক ব্যবহার করে থাকে। পেনকেক দিলেও ফুল কভারেজ মেকআপ হয়, তবে পেনকেকের কিছু সাইড ইফেক্ট থাকে যা অনেকেই জানেন না। পেনকেক ব্যবহার করলে মেকআপ তোলার পর মুখ কালো এবং রুহ্ম হয়ে যায়। তাই আমি ফাউন্ডেশন-ই সাজেষ্ট করব।ফাউন্ডেশন আপনাকে ফুল কভারেজ দিবে। সারাদিন মেকআপ নিয়ে থাকলেও মোটেও ফেস কেকি লাগবে না। আপনি দুটি লেয়ার দিতে পারেন ফুল কভারেজের জন্য। একবার দিয়ে শুকানোর পর আরেকটি লেয়ার দিন। তবে ফাউন্ডেশন অবশ্যই মেট ব্যবহার করবেন। তা না হলে মেকআপ গলে যেতে পারে। মনে রাখবেন ফাউন্ডেশন ব্যবহার করার সময় হাত দিয়ে ফাউন্ডেশন ইউজ করবেন না। হাত ব্যবহার করলে পরবর্তীতে মেকআপ মুখে কালো দেখায়। মেকআপ অবশ্যই কোন ব্রাশ বা বিউটি ব্লেন্ডার দিয়ে ইউজ করবেন। (বাজারে ভালমানের বিউটি ব্লেন্ডার পাওয় যায়) কিন্তু কখনো ঘষে ঘষে ফাউন্ডেশন দিবেন না, মুখে বিউটি ব্লেন্ডার চেপে ধরে ধরে ফাউন্ডেশন লাগাবেন।

স্টেপ:৬ এরপর আসছে কন্টুরিং এর পালা। কন্টুরিং ব্যবহার করা হয় আপনার মুখের শেপ বুঝানোর জন্য। যাতে মুখে মেকআপ আরও ফোকাস করে। ন্যাচারাল শেড দিয়ে আপনি চোঁখের নিচে এবং স্মাইল লাইন বা গালে ভাল করে একটি স্টিক দিয়ে লাগিয়ে নিন। যারা নাক টাকে একটু খাড়া দেখাতে চান তারা নাকের উপরের অংশে লাগাবেন। এবং মুখের চারপাশে একে নিবেন। এরপর বিউটি ব্লেন্ডারটিকে ভালমত ভিজিয়ে নিয়ে কন্টুরিং লাইন গুলো কে ভাল মত ব্লেন্ড করে নিন। একটু সময় লাগবে ব্লেন্ড হতে, মনে হবে ব্লেন্ড হচ্ছে না। তবে ধৈর্য ধরে আস্তে আস্তে করলেই ব্লেন্ড হয়ে যাবে।তবে যারা কন্টুরিং সম্বন্ধে তেমন জানেন না, তাদের বলব এ স্টেপ টা স্কিপ করতে। অথবা মেকআপ করার আগে বাসায় ইউ টিউব দেখে এ স্টেপটি করে প্র্যাকটিস করবেন।

স্টেপ:৭ এরপর ভাল কোন লুজ পাউডার কন্টুরিং করা স্থানে চেপে বসিয়ে দিবেন। বাজারে অনেক ভাল মানের লুজ পাউডার রয়েছে, যা সব ধরনের ত্বকের সাথেই মানানসই। ত্বক কালার যাই হোক না কেন এটি দিলে মুখ থেকে তেল বের হয় না।

স্টেপ:৮ এরপর গুরুত্বপূর্ন স্টেপ হচ্ছে পাউডার লাগানো, এবং সেটি হতে হবে অবশ্যই মেট।(উপরের লুজ পাউডার টি লাগাবেন শুধু কন্টুরিং করা স্থানে, আর ফেস পাউডার পুরো ফেসের ফিনিশিং টাচের জন্য) পুরো ত্বকে সুন্দর করে ব্রাশ দিয়ে ফেসপাউডার মুখে লাগিয়ে নিন।

স্টেপ:৯ এরপর গালে ব্লাশন ব্যাবহার করবেন। ব্লাশন ব্যবহার করলে অনেক গর্জিয়াস মনে হবে এবং গালে পিঙ্কিশ একটা ভাব আসবে। যেটা পার্টি মেকআপের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ন। ব্লাশন গালের সেই অংশটিতে লাগাবেন, হাসলে গালের যে অংশটি ফুলে যায়।

স্টেপ:১০ অবশেষে ভাল কোন ব্রান্ডের মেকআপ সেটিংস স্প্রে দিয়ে পুরো মুখে স্প্রে করুন। মেকআপ সেটিংস স্প্রে ব্যবহার করা হয় আপনার মেকআপকে গলে যাওয়ার হাত থেকে রহ্মা করতে।মেকআপ করার সময় এই ১০ টি স্টেপ অনুসরন করলে আপনার মেকআপ নষ্ট হবে না। এবং আপনার মেকআপ হবে লং লাস্টিং।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image