প্রাইম ব্যাংকে হারিয়ে শীর্ষস্থানে রূপগঞ্জ

খেলা ডেস্ক, সিটিজিবার্তা২৪ডটকম

শনিবার, ১৮ জুন ২০১৬

ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ মাঠে গড়াচ্ছে আজ

ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লীগ ২০১৫-১৬ লগো

মোহাম্মদ মিঠুন, আসিফ আহমেদ ও নাহিদুল ইসলামের ট্রিপল ফিফটির ওপর ভর করে ওয়ালটন ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেটের সুপার লিগেও জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে রিজেন্ড অব রূপগঞ্জ। শনিবার সাভারের বিএেসপিতে অনুষ্ঠিত খেলায় তারা ৫ উইকেটে হারিয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে।

এ ম্যাচে জয়ের ফলে ১৪ ম্যাচ থেকে ২০ পয়েন্ট নিয়ে একভাবে তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে রূপগঞ্জ। অপরদিকে এ ম্যাচে হারায় ১৪ ম্যাচ থেকে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে শিরোপা লড়াই থেকে ছিটকে পড়লো প্রাইম ব্যাংক। এরআগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২২২ রান সংগ্রহ করে প্রাইম ব্যাংক। জবাবে ৪৮.৫ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে জয়ের লক্ষ্যে পৌছায় লিজেন্ড অব রূপগঞ্জ।

টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২২২ রান তোলে প্রাইম ব্যাংক। মাঝারিমানের পুঁজি পেতে ব্যাট হাতে দারুণ ভূমিকা রাখেন নূরুল হাসান সোহান। ৯৬ বলে ৭৫ রানের ইনিংস খেলে রান আউটের শিকার হন এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান। এছাড়া তাইবুর রহমানের ব্যাট থেকে আসে ৩৫ রান, শুভাগত হোম করেন ৩২ রানও উন্মুখ চাঁদ ৩০ রান করেন। পবন নেগি নেন দুটি উইকেট। আলাউদ্দিন বাবু, তাইজুল ইসলাম ও নাহিদুল ইসলাম ১টি করে উইকেট পান।

২২৩ রানের সহজ লক্ষে খেলতে নেমে রূপগঞ্জ শুরুতেই ওপেনারকে হারিয়ে ধাক্কা খায়। দ্বিতীয় উইকেটে সৌম্য সরকার ও মিঠুন মিলে ৭৩ রানের জুটি গড়েন। সৌম্য ৪৬ বলে ৪৭ রান করে শুভাগতর শিকারে পরিণত হন। সৌম্যর বিদায়ের পর আসিফ আহমেদ রাতুলকে নিয়ে তৃতীয় উইকেটে  ৫৩ রানের জুটি গড়ে ফিরে যান মিঠুন। তিনি ৭৬ বলে ৫ চার ও এক ছয়ে তার ৫০ রানের ইনিংসটি সাজিয়েছেন।

মিঠুনের বিদায়ের পর ফিরে যান পবন নেগিও (১)। এরপর পঞ্চম উইকেটে নাহিদুল ইসলাম ও আসিফ আহমেদ রাতুল মিলে ৭৭ রানের জুটি গড়লে জয়ের বন্দরে তরী ভেড়ায় রূপগঞ্জ। আসিফ আহমেদ ৫১ ও নাহিদুল ৬৪ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন তারা। প্রাইম ব্যাংকের হয়ে শুভাগত হোম ২টি উইকেট পান।

এছাড়া নাজমুল ইসলাম, মনির হোসেন, তাইবুল রহমান ১টি করে উইকেট নেন। শেষ পর্যন্ত অলরাউন্ডিং পারফরম্যান্সের জন্য ম্যাচসেরা হয়েছেন রূপগঞ্জের নাহিদুল ইসলাম।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.