ব্যাক্তিগত তথ্য নিরাত্তায় করনীয় সমূহ – ক্রাফ।

আপনার ব্যাক্তিগত তথ্য কি নিরাপদ? সাইবার জগতে আপনি কখনোই আপনাকে শত ভাগ নিরাপদ বলতে পারবেননা। কিন্ত কিছু কিছু সাবধানতা অবলম্বন এর মাধ্যমে প্রাথমিক পর্যায় এর সাইবার ক্রাইম এর আক্রমণ থেকে জনগন নিজেদের কে কিছুটা সুরক্ষিত রাখতে পারেন। এই ব্যাপারে আমরা কথা বলেছি দীর্ঘদিন ধরে সাইবার ক্রাইম নিয়ে কাজ করে আসা এবং জনগন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মধ্যে সেতু বন্ধন হিসেবে কাজ করে আসা ইন্সটিটিউট ”ক্রাফ” এর সাথে৷ ব্যাক্তিগত তথ্য নিরাপত্তায় করনীয় সমূহ আমাদের জানিয়েছেন, ক্রাফের প্রেসিডেন্ট- জেনিফার আলম।


ব্যক্তিগত তথ্য নিরাপত্তায় করনীয়ঃ

১) পাবলিক ওয়াইফাই ব্যাবহার থেকে দূরে থাকুন। কারন একই নেটওয়ার্কের আন্ডারে হ্যাকার আপনার ডিভাইসের সব নিয়ন্ত্রন নিতে পারে ।

২) সম্পর্ক থাকুক বা না থাকুক, হোক সেটা বিয়ের আগে বা পরে কোন অবস্থাতেই এমন ছবি ধারন করা উচিত না যেটা তৃতীয় ব্যাক্তি দেখলে সমস্যা ।

৩) ছবি ১০০ বার ডিলিট করলেও সেটা রিকভার করা সম্ভব, সুতরাং পরে ডিলিট করে দিবেন বলে নিজের ফোনেও এমন ছবি তুলবেন না। এবং নিজের পুরাতন ফোন বিক্রয় করা থেকে বিরত থাকুন।

৪) যা কিছু হোক না কেন নিজের ব্যাক্তিগত পাসওয়ার্ড অন্যকে দেওয়া থেকে বিরত থাকুন।

৫) বিশেষ করে ফেসবুক বা ইমোতে ছবি আদান প্রদান করবেন না। যারা এর মদ্ধে করে ফেলেছেন তারা ২জনই আপনাদের সব কনভারসেশন ডিলিট করে দিন ।কারন একজনের আইডি হ্যাক হলে অপর জনও বিপদে পড়বেন ।

৬) কোন লিংকে ক্লিক করার আগে দ্বিতীয়বার ভাবুন। কারন ম্যালওয়ার লিংকে ক্লিক পড়ে গেলে আপনার ডিভাইসের এক্সেস হ্যাকারের কাছে চলে যাবে।

৭) দোকানে ফোন ঠিক করতে দিলে পাশে দাড়িয়ে ঠিক করে নিন।

৮) অনলাইনে ডলার/পাউন্ড কেনা বেচা থেকে বিরত থাকুন। যেহেতু এটা অবৈধ। তাই কেউ ডলার বিক্রয় করে প্রতারিত হলে আইনগত সহায়তা পাবেন না।

৯) অনলাইনে পণ্য কেনা বেচা করার আগে ভাল করে যাচাই করে নিন।

১০) সাইবার ক্রাইম, অনলাইন ব্ল্যাকমেল, ছবি ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি যা কিছু হোক না কেন সরাসরি নিকটস্থ থানায় যোগাযোগ করুন।

আমাদের ব্যাক্তিগত জীবনের সংবেদনশীল তথ্য এবং ছবিগুলো যেন কোন অবস্থায়ই তৃতীয় কোন ব্যাক্তির হাতে চলে না যায় এই জন্য আমরা প্রাথমিক ভাবে এই দশটি পরামর্শ মেনে চলতে হবে। এবং যে কোন ধরনের সাইবার ক্রাইম এর শিকার হলে নিকটস্থ থানাতে জেনারেল ডায়েরি করতে হবে। খুব বেশি জরুরি পরিস্থিতিতে ন্যাশনাল ইমার্জেন্সী সার্ভিস – ৯৯৯ এ কল করে ইমার্জেন্সী পুলিশ সেবা গ্রহন করার পরামর্শ দেন জেনিফার ।

 

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.