ভারতে মাংস খাওয়ার গুজবে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা !

বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৫

সিটিজিবার্তা ২৪ ডটকম 

Mohammad-Akhlaq_3458051bআন্তর্জাতিক সংবাদ ঃ ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির উপকণ্ঠে গরুর মাংস খাওয়ার গুজবে ৫০ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে স্থানীয়রা। হামলায় গুরুতর আহত হয় আখলাকের ২২ বছর বয়সী ছেলেও।

উত্তর প্রদেশের দাদরি গ্রামে সোমবার রাতে মোহাম্মদ আখলাক নামের ওই ব্যক্তিকে পিটিয়ে আর পাথর ছুড়ে হত্যা করা হয় বলে ভারতের গণমাধ্যমে খবর এসেছে।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, প্রায় ১০০ গ্রামবাসী মোহাম্মাদ ইখলাক নামের ওই ব্যক্তি ও তার ছেলেকে ঘর থেকে টেনেহিঁচড়ে বের করে আনে এবং ইট দিয়ে তাদের মাথায় আঘাত করতে থাকে। এতে মোহাম্মাদ ইখলাক মারা যান এবং তার ছেলে গুরুতর আহত হয়।

এনটিভির খবরে আরও বলা হয়, ওই ঘটনার আধা ঘণ্টা আগে পার্শ্ববর্তী একটি মন্দির থেকে ঘোষণা করা হয়, এলাকায় একটি বাছুর জবাই করা হয়েছে। বাছুরের দেহের অবশিষ্টাংশ স্থানীয় একটি ট্রান্সফর্মারের কাছে পাওয়া গেছে। তবে ওই ঘোষণায় কারও নাম উল্লেখ করা হয়নি। কিন্তু ওই এলাকায় মাত্র দুটি মুসলিম পরিবার থাকে।

ওই ঘোষণার পর রাত সাড়ে ১০টার দিকে লোকজন ইখলাকের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা ইখলাকের স্ত্রী ও ৭০ বছর বয়সী বৃদ্ধ মাতাকেও মারধর করে।

তিন দশকের বেশি সময় ধরে পরিবারটি ওই গ্রামে বাস করত। কীভাবে গরুর মাংস খাওয়া সম্পর্কিত গুজবটি ছড়াল, সে বিষয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।

ইখলাকের মেয়ে সানজিদা বলেন, ‘তারা আমার বাবা ও ভাইকে মারতে মারতে বাড়ির বাইরে নিয়ে যায়। সেখানে আমার বাবাকে ইট দিয়ে বারবার আঘাত করে রক্তাক্ত করে। পরে আমরা জানতে পারি, স্থানীয় মন্দির থেকে ঘোষণা করা হয়েছে যে আমাদের ফ্রিজে গরুর মাংস আছে। অথচ আমাদের ফ্রিজে শুধু খাসির মাংস ছিল। ফ্রিজের সেই মাংস আলামত হিসেবে সংগ্রহ করে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য নিয়ে গেছে পুলিশ।’

এস কিরান নামের এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ‘গরুর মাংস খাওয়ায় ওই দুই ব্যক্তিকে মারধর করা হয় বলে আমরা জানতে পারি। ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছয় ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। আরো অপরাধীকে খুঁজে আটক করা হবে।’

আপনার মতামত দিন....

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.