ভোলায় আওয়ামী লীগ নেতাকে হত্যার চেষ্টা

শনিবার, ০৭ নভেম্বর ২০১৫

সিটিজিবার্তা ২৪ ডটকম

volaজেলা প্রতিনিধি : ভোলার চরফ্যাশনে হাসপাতালের জরুরী বিভাগ থেকে হাজি মো. মফিজুল ইসলাম নামে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে ছিনিয়ে নিয়ে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

শনিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। সকালে হামলার পর হাসপাতালে পুনরায় এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। আহত মফিজুল ইসলাম নুরাবাদ ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, চর তোফাজ্জল মৌজার ৪৮ শতাংশ জমির মালিকানা নিয়ে সৃষ্ট বিরোধকে কেন্দ্র করে সকালে এক দফা হামলার ঘটনা ঘটে। দুপুর দেড়টার দিকে একদল দুর্বৃত্ত পুনরায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মফিজুল ইসলামের ওপর হামলা করে।

আহত হাজী মো. মফিজুল ইসলাম জানান, চর তোফাজ্জল মৌজার ৪৮ শতাংশ জমি নিয়ে স্থানীয় আবদুল আজিজ ও তার চাচা আবদুল মান্নান বেপারীর মধ্যে বিরোধ চলছিল। শনিবার সকালে আবদুল আজিজ ভাড়াটে লোকজন নিয়ে জমি দখলের চেষ্টা করেন। এ সময় বাধা দিলে তাদের পিটুনিতে আবদুল মন্নান বেপারী, তার দুই ভাইয়ের স্ত্রী রানু বিবি ও জাহানারা বেগম এবং ভাতিজা হাজি মফিজুল ইসলাম আহত হন। ঘটনার পর রানু বিবি ও জাহানারা বেগমকে চরফ্যাশন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসার জন্য তিনিও হাসপাতালের জরুরী বিভাগে আসেন।

তিনি আরও জানান, জরুরী বিভাগে পৌঁছলে দুবৃর্ত্তরা তাকে টেনে হিছড়ে হাসপাতাল চত্বরে নিয়ে মারধর করে। এ সময় তিনি দৌড়ে হাসপাতাল মসজিদে আশ্রয় নেন। হামলাকারীরা মসজিদে ঢুকেও তাকে মারধর করে।

জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শাহিনারা বেগম জানান, শক্ত বস্তুর আঘাতে মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশ থেঁতলে গেছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনামুল হক বলেন, চর তোফাজ্জল গ্রাম এবং হাসপাতালের হামলার ঘটনায় কোনো পক্ষ অভিযোগ করেনি। তবে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.