মুচলেখা দিয়ে ছাড়া পেলেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান

রোববার,২৫ জুন ২০১৭

চট্টগ্রাম: শিক্ষানবিশ এক নারী চিকিৎসকের সঙ্গে ‘অশোভন আচরণ’ করায় চট্টগ্রামের রাউজানের উপজেলা চেয়ারম্যান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুলকে এক ঘন্টা আটকে রাখার পর মুচলেখা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল শনিবার রাত সাড়ে ৮টা থেকে সাড়ে ৯টা পর্যন্ত এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুলকে আটকে রাখেন চিকিৎসকরা।

চমেক সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাতে চমেক হাসপাতালের ক্যাজুয়ালিটি ওয়ার্ডে এক পরিচিত রোগীকে দেখতে যান উপজেলা চেয়ারম্যান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল। এ সময় রোগীর স্বজনরা জানান যে তারা ভালোভাবে চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন না। এ কথা শুনে শিক্ষানবিশ এক নারী চিকিৎসকের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেন বাবুল। বিষয়টি জানতে পেরে চিকিৎসকরা দ্রুত এসে বাবুলকে আটকে রাখেন। এসময় হেনস্থার শিকার হন উপজেলা চেয়ারম্যান বাবুলও।
এরপর বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি ডা. মুজিবুল হক খান ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। তার হস্তক্ষেপে এক ঘন্টা আটকে থাকার পর মুচলেখা দিয়ে ছাড়া পান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল। ঘটনা তদন্তের জন্য তিন সদস্যের একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

জানতে চাইলে বিএমএ চট্টগ্রামের সভাপতি ডা. মুজিবুল হক খান বলেন, ক্যাজুয়ালিটি ওয়ার্ডের দায়িত্বরত চিকিৎসকের কক্ষে ঢুকে শিক্ষানবিশ এক নারী চিকিৎসকের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেন উপজেলা চেয়ারম্যান বাবুল। সমঝোতার মাধ্যমে ওনাকে যেতে দেওয়া হয়েছে। তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে ঘটনা তদন্তের জন্য পরিচালককে বলা হয়েছে। ওনার (বাবুল) কাছ থেকে মুচলেখা নেওয়া হয়েছে।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.