২০১৫ সালে ব্যাংকগুলোর কাঙ্ক্ষিত মুনাফা অর্জিত হয়নি

মঙ্গলবার, ৫ জানুয়ারি, ২০১৬

bang_news_imageসিটিজিবার্তা২৪ডটকম, ঢাকা: ২০১৫ সালে সরকারি ও বেসকারি ব্যাংকগুলোর  কাঙ্ক্ষিত মুনাফা অর্জিত হয়নি। বিশ্লেষকরা বলছে মূলত ব্যাংকগুলোতে বিনিয়োগ পরিস্থিতি মন্দার কারণেই কাঙ্ক্ষিত মুনাফা অর্জিত হয়নি।

ব্যাংক খাতের বিশ্লেষকরা বলেন, ২০১৫ সালে পরিচালনা মুনফা কমার আরেকটা কারণ ছিল ঋণ ও আমানতের সুদের পার্থক্য কমে আসা। ঋণ ও আমানতে সুদের পার্থক্য ২০১৫ সালে গড়ে ৫ শতাংশের নিচে নেমে এসেছে। বিভিন্ন সেবার মাসুল হার ও কমিশন আগের চেয়ে কমায় মুনাফা আগের মত হয়নি। তাছাড়া ব্যাংকগুলোর পরিচালনা ব্যয় ও বেড়েছে আমদানি-রপ্তানি ধীর গতি বিদেশি ঋণ, অলস টাকা পড়ে থাকায় মুনফায় নেতিবাচক প্রভাব পড়ে।

২০১৫ সালে ইউসিবিএল আয় করে ৮৩৩ কোটি টাকা ও ২০১৪ সালে ইউসিবিএল এর আয় হয়েছিল ৭৭১ কোটি টাকা।

২০১৫ সালে ন্যাশনাল ব্যাংক আয় করে ৭০০ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে ন্যাশনাল ব্যাংকের আয় হয়েছিল ৮৩০ কোটি টাকা।

২০১৫ সালে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক আয় করে ৩৬৫ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের আয় হয়েছিল ৪১৫ কোটি টাকা।

সোস্যাল ইসলামী ব্যাংক ২০১৫ সালে আয় করে ৫৫০ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের আয় হয়েছিল ৪৫০ কোটি টাকা।

এদিকে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর মধ্যে ইসলামী ব্যাংক সবচেয়ে বেশি মুনাফা আয় করে। ইসলামী ব্যাংক ২০১৫ সালে আয় করে ১৮০৭ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে ইসলামী ব্যাংকের আয় হয়েছিল ১৭০৩ কোটি টাকা।

জনতা ব্যাংক ২০১৫ সালে আয় করে ১২০০ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে জনতা ব্যাংকের আয় হয়েছিল ১০৬৮ কোটি টাকা।

সাউথ ইস্ট ব্যাংক ২০১৫ সালে আয় করে ৮৩৫ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে সাউথ ইস্ট ব্যাংকের আয় হয়েছিল ৮৩২ কোটি টাকা।

পূবালী ব্যাংক ২০১৫ সালে আয় করে ৮১০ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে পূবালী ব্যাংকের আয় হয়েছিল ৭৮২ কোটি টাকা।

আল আরাফা ব্যাংক ২০১৫ সালে আয় করে ৬৫০ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে আল আরাফা ব্যাংকের আয় হয়েছিল ৬১৩ কোটি টাকা।

শাহাজালাল ইসলামী ব্যাংক ২০১৫ সালে আয় করে ২৭০ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে শাহাজালাল ইসলামী ব্যাংকে আয় করে ২৫০ কোটি টাকা।

ব্যাংক এশিয়া ২০১৫ সালে আয় করে ৬০৫ কোটি টাকা,  ২০১৪ সালে ব্যাংক এশিয়ার আয় হয়েছিল ৬১৩ কোটি টাকা

এনসিসি ব্যাংক ২০১৫ সালে আয় করে ৪১৯ কোটি টাকা, ২০১৪ সালে এনসিসি ব্যাংকের আয় হয়েছিল ৩৮৭ কোটি টাকা।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.