৪৬ দিন পর বড়পুকুরিয়ায় কয়লা উত্তোলন শুরু

শুক্রবার, ৮ জানুয়ারি, ২০১৬

জেলা প্রতিবেদক,সিটিজবার্তা২৪ডটকম

৪৬ দিন পর বড়পুকুরিয়ায় কয়লা উত্তোলন শুরু

দিনাজপুর: টানা ৪৬ দিন বন্ধ থাকার পর দিনাজপুরের বড়পুকুরিয়া কয়লা খনিতে পরীক্ষমূলকভাবে উৎপাদন শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার থেকে খনির নতুন ১২০৫ নম্বর কোল ফেইস থেকে কয়লা উত্তোলন করা হয় বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

খনি ভূ-গর্ভে উৎপাদনশীল ১২০৮ নম্বর কোল ফেইসে মজুদ শেষ হয়ে যাওয়ায় গত বছরের ২২ নভেম্বর থেকে কয়লা উত্তোলন বন্ধ রাখা হয়েছিল। এরপর ১২০৮ নম্বর ফেইসে ব্যবহৃত উৎপাদন যন্ত্রপাতি সরিয়ে ১২০৫ নম্বর ফেইসে স্থাপন করে পরীক্ষমূলকভাবে বৃহস্পতিবার থেকে উৎপাদন শুরু করা হয় বলে বড়পুকুরিয়া খনির মহাব্যবস্থাপক (মাইনিং) প্রকৌশলী হাবিব উদ্দিন আহমেদ জানান।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ১২০৫ নম্বর ফেইসটিতে উত্তোলনযোগ্য কয়লার পরিমান চার লাখ থেকে পাঁচ লাখ টন। তবে এ ফেইসটি ঝুঁকিপূর্ণ। এর আগে ২০১৪ সালের এপ্রিল মাসের শেষে ওই ফেইস থেকে পরীক্ষমূলক কয়লা উৎপাদন শুরুর ১০-১১ দিনের মাথায় ১০ মে পানির প্রবাহ অস্বাভাবিক বেড়ে গিয়ে জলাধারা সৃষ্টি হওয়ায় উত্তোলন বন্ধ হয়ে যায়।

খনির ভূ-গর্ভে কয়লা স্তরের ওপরের অংশে কিছু কিছু জায়গায় বড় বড় পানির পকেট রয়েছে। কয়লা কাটতে গিয়ে পানির পকেট ভেঙে যাওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়। সে সময় খনি ভূ-গর্ভে স্থাপিত উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ১৩টি পাম্প ২৪ ঘণ্টা চালু রেখে প্রতি ঘণ্টায় প্রায় দুই হাজার ঘনমিটার পানি সারফেজে সরিয়ে ফেলেও প্রবাহ নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। পরে ১২০৫ নম্বর কোল ফেইসটি সাময়িকভাবে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।

পরবর্তীতে খনির উৎপাদন ও রক্ষণাবেক্ষণ ঠিকাদার সিএমসি-এক্সএমসি কনসোর্টিয়ামের এক্সপার্টরা ফেইসটি পরিদর্শন ও পরীক্ষা নিরীক্ষা করে যাবতীয় তথ্য উপাত্ত নিয়ে যায়। তবে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ভিন্ন প্রক্রিয়ায় পানি প্রবাহ নিয়ন্ত্রণে রেখে ওই ফেইস থেকে কয়লা উত্তোলন শুরু করেছে।

আপনার মতামত দিন....

এ বিষয়ের অন্যান্য খবর:


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।


CAPTCHA Image
Reload Image